সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় প্রস্তুত চাঁদপুর জেলা উপকূলবর্তী তিনটি উপজেলা

ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় প্রস্তুত চাঁদপুর জেলা উপকূলবর্তী তিনটি উপজেলা

মোঃ তারেক হাছান
চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি

চাঁদপুরে জেলার তিনটি উপজেলার উপকূলবর্তী ইউনিয়নগুলোতে ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় নানা প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

অনলাইনে প্রস্তুতিমূলক সভা করেছে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি। প্রস্তুত রাখা হয়েছে জেলার আশ্রয়কেন্দ্রগুলো।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান জানান,
“ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সদরের ৮টি ইউনিয়ন, মতলব উত্তরের ৬টি ও হাইমচরের ৪টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান-সচিবদের নিয়ে প্রস্তুতি সভা করেছি। ওইসব এলাকার মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে আনতে এবং সেখানে সামাজিক দূরত্ব রেখে অবস্থানের বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য বলা হয়েছে। পাশাপাশি জেলার সবগুলো আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখার জন্য বলা হয়েছে এবং সব উপজেলায় মাইকিং করা হচ্ছে।”

এছাড়া জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং নৌ-বন্দরের কর্মকর্তাদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। জরুরি অবস্থা মোকাবেলার জন্যে প্রয়োজনীয় খাদ্য মজুদ রাখতেও নির্দেশ দওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

চাঁদপুর জেলা আবহাওয়া কর্মকর্তা-ভারপ্রাপ্ত শাহ মোহাম্মদ শোয়েব বলেন,
আবহওয়া অধিদপ্তরের ১৯ নম্বর বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। চাঁদপুর উপকূলীয় জেলা হিসেবে ৬ নম্বরের আওতায় থাকবে।

“এই সংকেত অনুযায়ী যখন ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলীয় এলাকা অতিক্রম করবে তখন স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৫ ফুট উচ্চতায় জলোচ্ছাস প্লাবিত হতে পারে। এছাড়া অতি ভারি বর্ষণসহ ঘণ্টায়১৪০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার বেগে দকমা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।”

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com