সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
শিরোনামঃ
টাঙ্গাইলে অটোরিকশা-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ, ২ শিশুসহ আহত ৬ শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বৃদ্ধ দুই গাঁজাসেবীকে তাবলীগে পাঠালেন ওসি শেরপুর পুলিশ লাইন্স একাডেমির প্রধান শিক্ষক পদে যোগদান করলেন আবুল কালাম আজাদ নালিতাবাড়ীতে ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণের সমাপনী অনুষ্ঠান বাঞ্ছারামপুরে মাদক সেবনের টাকা না দেওয়ায় মেয়ের কাঁচির আঘাতে মা নিহত। ঈশ্বরগঞ্জে নব নির্বাচিত কাউন্সিলরের মৃত্যু শেরপুরের শ্রীবরদীতে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ শুরু ঈশ্বরগঞ্জে স্কাউটসের ডে ক্যাম্প অনুষ্ঠিত ঈশ্বরগঞ্জের যত্ন প্রকল্পের ক্যাশ কার্ড প্রদান সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন কে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে শ্রীপুরে বিএমএসএফএর প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত।
অসহায় পরিবারদের পাশে ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ বরিশাল জেলা

অসহায় পরিবারদের পাশে ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ বরিশাল জেলা

ফাইল ছবি

শাহীন ইসলাম, বরিশাল জেলা প্রতিনিধিঃ-

সেই মার্চ থেকে করোনার প্রার্দুভাব দেখা দেয় বাংলাদেশে। দিন দিন আক্রান্ত আর মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলছে। সেই সাথে কোভিড-১৯ স্থবির করে দিয়েছে দেশের অর্থনৈতিক চাকা। যার ভয়াল আঘাতের প্রভাব পড়েছে মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের উপর।
কিন্তু করোনার ভয়াবহতা রুখতে পারেনি ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ (ভিবিডি) বরিশাল জেলার ভলান্টিয়ারদের। মানবসেবায় তারা সর্বদা সচেষ্ট। ২০ই মে, ২০২০ ভিবিডি বরিশাল জেলার ‘Your Smile,Our Happiness’ প্রজেক্টের মধ্য দিয়ে নেয়া ক্ষুদ্র উদ্যোগের মাধ্যমে অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছিল তারা। ভলান্টিয়াররা চাল-ডালসহ ১০ দিনের নিত্য প্রয়োজনীয় আহার সামগ্রী তুলে দিয়েছিল বরিশাল সদরের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত হতদরিদ্র প্রায় অর্ধশতাধিক পরিবারের হাতে। সকাল ৭.৩০ থেকে ৯ টা পযন্ত অক্সফোর্ড মিশন রোড সংলগ্ন মসজিদের সামনে তাদের বন্টন কার্যক্রম সম্পন্ন করে।
ভিবিডি বরিশাল জেলার প্রেসিডেন্ট, আনিকা যারীন শিফা বলেন, ‘দেশের এ অবস্থা দেখে আর বসে থাকা গেলো না তাই সকলে সহযোগিতায় এ উদ্যোগটা নেয়া। অল্প হলেও কিছু পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। এমন করে যদি সবাই নিজ নিজ জায়গা হতে কাজ করে তবে এমন অসহায় মানুষদের আর অনাহারে দিন যাপন করতে হয় না।’
প্রজেক্ট অফিসার বলেন, ‘আমরা প্রতিবছরই সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও বৃদ্ধাশ্রমের মানুষদের সাথে নিয়ে ইফতার করে থাকি, কিন্তু এবছর সারা বিশ্বে মহামারি করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ এর জন্য পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমরা নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যগুলো প্রায় অর্ধশতাধিক নিম্নবিত্ত পরিবারকে প্রদান করি। ভলান্টিয়ারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মাধ্যমে সুষ্ঠভাবেই প্রজেক্টি শেষ হয়।’
উপহার সামগ্রী গ্রহণকৃত একজন ব্যক্তি বলেন, ‘আমি পিঠা বিক্রি করতাম,এখন আয় রোজকার নেই এখান থেকে যা পেয়েছি তা দিয়ে অনেকদিন চলতে পারবে।

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com