সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী নিয়ে পাশে দাঁড়াল ইবরাহীম খাঁ’র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ

ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী নিয়ে পাশে দাঁড়াল ইবরাহীম খাঁ’র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ

ফাইল ছবি

মোঃ সজিব হোসাইন ,টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলে ভূঞাপুরে ৭০টি পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে পাশে দাঁড়ালো উপজেলার ইবরাহীম খাঁ’র আলোকিত ভূঞাপুর নামের স্থানীয় একটি সংগঠন।
২৪ মে (রবিবার) পর্যন্ত তারা ভূঞাপুর – ঘাটাইলের মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত আয়ের পরিবারের মাঝে এই ত্রাণ বিতরণ করে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পরা করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করলে আমাদের দেশেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সরকার গত ২৪ মার্চ (মঙ্গলবার) জরুরী অবস্থা জারী ঘোষণা ও সেনাবাহিনী মোতায়েন করলে বিশেষ কিছু জরুরী পণ্যের দোকান ছাড়া সব বন্ধ হয়ে যায়। এতে কর্মহীন হয়ে পরে কয়েক লক্ষ মানুষ। এই অবস্থায় সারা দেশের ন্যায় উপজেলা ভূঞাপুরের প্রায় ৩ হাজার খেটে খাওয়া দিনমজুর সহ অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়ে। আর এতে এইসব পরিবারের মাঝে দেখা দেয় তীব্র খাদ্য সংকট। এই জরুরী অবস্থায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয় অসচ্ছল মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবারের মানুষেরা।
এই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সংগঠন ইবরাহীম খাঁ’র আলোকিত ভূঞাপুর গ্রুপ রমজানের আগে ২৪এপ্রিল (শুক্রবার) পর্যন্ত ২ শতাধিক পরিবারের মাঝে এবং সেই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ২২মে (বুধবার) হতে ২৪মে (রবিবার) পর্যন্ত ধারাবাহিক ভাবে রাতের আঁধারে পরিবারগুলোর মাঝে ৭দিনের ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে। এই নিয়ে এলাকায় প্রশংসিত হয়েছে সংগঠনটি। সংগঠনটি চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, আলু, চিনি, দুধ, সেমাই ও অ্যান্টিবায়োটিক সাবানসহ একটি ব্যাগ গোপনে ওই পরিবারের বাড়ির দরজা রেখে আসে। এই গোপনে খাদ্য পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সমাজের সুশীল নাগরিকসহ সকল শ্রেণীর পেশার মানুষ। এই ত্রাণ কার্যক্রমে একাত্মতা পোষণ করে বিশ হাজার টাকা দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন সূর্যতরুন ফাউন্ডেশন এবং ইবরাহীম খাঁ ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রিন্সিপাল ইবরাহীম খাঁর দৌহিত্র মো: আতিকুল হাবিব ও ডা. মোসাদ্দেক হাবিব। তারা সংগঠনটির সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে যেকোন সামাজিক কাজে পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন। এছাড়াও সংগঠনের উপদেষ্টামন্ডলী, সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের আর্থিক সহযোগিতায় কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও সাবেক অধ্যাপক মির্জা মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, তোমাদের গ্রুপের কাজ আমাকে মুগ্ধ করেছে। এভাবেই দেশের ক্রান্তিকালে তোমাদের তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে। তবেই দেশ এই দুর্যোগ থেকে অতি দ্রুত পরিত্রাণ পাবে।
এই বিতরণ নিয়ে গ্রুপের প্রধান উপদেষ্টা সন্তোষ কুমার দত্ত বলেন, সকল মানবিক কাজে আমি এই সংগঠনের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আশা করছি তারা এরকম মানবিক কাজের ধারা অব্যাহত রাখবে।
সংগটনটির সভাপতি কামরান পারভেজ ইভান বলেন, আমরা দেশের ক্রান্তিকালে যে কোন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়াই। শুরু থেকেই আমরা বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও পুরো উপজেলায় আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এই সংকটময় পরিস্থিতি যতদিন দীর্ঘই হোক, আমরা পাশে আছি ইনশাআল্লাহ।
উল্লেখ্য সংগঠনটি ২০১৬ সাল থেকে দেশের ক্রান্তিকালে ত্রান সাহায্য, দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ ও বৃত্তি প্রদান, মানবতার দেয়াল প্রতিষ্ঠা করে তারা বিভিন্ন সামাজিক ও মানবিক কাজ করে যাচ্ছে। তাদের কার্যক্রমে এলাকাবাসীসহ স্থানীয় প্রশাসন ধন্যবাদ প্রকাশ করেছেন।

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com