সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
শিরোনামঃ
নাসিরনগরে গ্রেপ্তারী পরোয়ানাভুক্ত আসামীর পালিয়ে বিদেশ যাওয়ার চেষ্ঠা ব্যর্থ নবীন ও প্রবীন ফেনীর মিডিয়া ও গণমাধ্যম কর্মীদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত! শেরপুরে মুজিববর্ষে ২৯১ ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে জমিসহ ঘর শেরপুর শহর ছাত্রদলের আহ্বায়ক রিয়াদ, সদস্য সচিব আসিফ শেরপুর সদর উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব হলেন তরুণ ছাত্র নেতা সুমন ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগরে এশিয়ান টিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন ও অফিস উদ্বোধন নবীনগরে ছাত্রদল ব্লাডব্যাংকের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ নবীনগরে ছাত্রদল ব্লাডব্যাংকের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ৬নং শ্রীবরদী ইউপির ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে দোয়া ও সমর্থন প্রত্যাশী মোঃ আবেদ আলী
খাবার খেতে চাওয়ায় সন্তান ও পুত্রবধূর হাতে নির্যাতনের শিকার গর্ভধারিনী মা।

খাবার খেতে চাওয়ায় সন্তান ও পুত্রবধূর হাতে নির্যাতনের শিকার গর্ভধারিনী মা।

 

সূর্য বসাক,
স্ট্যাফ রিপোর্টারঃ

বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়ার উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের বারপাইকা এক সময়ে স্বনামধন্য ব্যক্তিত্ব স্বর্গীয় সূর্যকান্ত সরকার (সূর্যাই বেপারী) এর বৃদ্ধা সহধর্মিণী জ্ঞানদা রানী (৯৫)কে দু’মুঠো খাবার চাওয়ায় নির্মমভাবে নির্যাতন করে তার ছেলে জগদীশ সরকার ও পুত্রবধূ।

আগৈলঝাড়ার বারোপাইকায় গর্ভধারিনী মা ‚
সোমবার বিকেলে দু’মুঠো খাবার ও বয়স্ক ভাতার টাকা চাওয়া নিয়ে পুত্র বধুর সাথে কথা কাটাকাটি হলে এক পর্যায়ে পুত্রবধূ শাশুড়ির উপর ক্ষিপ্ত হয়ে এই নির্মম নির্যাতন চালায় বলে জানান নির্যাতনের শিকার বৃদ্ধা শাশুড়ি।ছেলে জগদীশ ও পুত্রবধূর নির্যাতনের শিকার হয়ে এই বৃদ্ধা মা এই ঘটনায় ছেলে ও পুত্রবধূর বিরুদ্ধে বিচার চেয়ে গ্রামের সুশীল সমাজের কাছে বিচার দিচ্ছে ।
কিন্তু এর আগেও এই ভাবে অত্যাচারের খবর শুনে এলাকার সুশীল সমাজের লোকজন ওই বাড়িতে গেলে ওই ঝগড়াটে পুত্রবধূ তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাড়ি থেকে বের করে দেয় এবং তাদের মিথ্যা মামলা দেওয়ার হুমকি দেয় । তাই এখন এলাকার জনগণ ওই মহিলার অভদ্র আচরণ ও এই নির্মম নির্যাতনের সুষ্ঠু সমাধান করতে যেতে চাচ্ছে না। এলাকার লোকজন আরও জানান, ওই বৃদ্ধা মহিলা গত ২মাস আগে চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে গেছে বলে তার শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু থাকতে পারে। তাই তাকে ২ মাস ঘরে না রেখে বাইরে একটি মন্দিরের সামনে রেখে দেয়।
তাই আগৈলঝাড়া উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের কাছে এই নির্মম নির্যাতনের সঠিক বিচারের দাবি জানান বারপাইকা এলাকার সাধারণ জনগণ। যাতে আর কোন মাকে ১০মাস ১০ দিন পেটে সন্তান ধারণ করে আস্তে আস্তে সন্তানকে বড় করে সেই সন্তান ও পুত্রবধূর হাতে নিত্যনৈমিত্তিক নির্যাতনের শিকার হতে না হয়।

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com