সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
শিরোনামঃ
কিশোরগঞ্জে করোনার ভয়াল থাবা, নতুন ৯১ জনের করোনা শনাক্ত, মোট শনাক্ত ১২২০, মৃত্যু ২০

কিশোরগঞ্জে করোনার ভয়াল থাবা, নতুন ৯১ জনের করোনা শনাক্ত, মোট শনাক্ত ১২২০, মৃত্যু ২০

 

সূর্য বসাক,
স্ট্যাফ রিপোর্টারঃ

কিশোরগঞ্জে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। শহর-গ্রাম সর্বত্রই ভয়াবহ বিস্তার ঘটছে চীনের প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের। শনিবার (২০ জুন) দিবাগত রাতে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী এ পর্যন্ত জেলার ১৩ উপজেলায় এক হাজার ২২০ জনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনা। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪১৮ জন। মারা গেছেন ২০ জন।
সর্বশেষ শনিবার (২০ জুন) দিবাগত রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করে ৯১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া নতুন করে ৩৮ জন করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন।
নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ৯১ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, তাড়াইল উপজেলায় ২ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৫ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৬ জন, ভৈরব উপজেলায় ৩৬ জন, নিকলী উপজেলায় ১ জন, ইটনা উপজেলায় ১ জন, মিঠামইন উপজেলায় ১ ও বাজিতপুর উপজেলায় ১৩ জন রয়েছেন।
এছাড়া ভৈরবে গত ১৫ জুন মারা যাওয়া সগীর আহমেদ নামে এক ব্যক্তির নমুনায় কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে। এ নিয়ে জেলায় করোনাভাইরাসে ২০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।
অন্যদিকে নতুন করে ৩৮ জন করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন। নতুন সুস্থ হওয়া ৩৮ জনের সবাই ভৈরব উপজেলার।
গত ১৩ জুন (শনিবার) জেলায় সংগৃহীত ২৪৪ জনের নমুনা মহাখালীর ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ (আইপিএইচ),শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ও শুক্রবার (১৯ জুন) ভর্তিকৃত ১৭ জন জরুরী রোগীর, রোববার (১৪ জুন), সোমবার (১৫ জুন), মঙ্গলবার (১৬ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) সংগৃহীত ১৭১ জনের নমুনা মিলিয়ে মোট ১৮৮ জনের নমুনা কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে এবং বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে সোমবার (১৫ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) সংগৃহীত ২৪ জনের নমুনা আইসিডিডিআরবি’তে পরীক্ষা করা হয়।
তিনটি ল্যাবে মোট ৪৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ৯১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১১২৯ জন। শুক্রবার (১৯ জুন) কোন রিপোর্ট পাওয়া যায়নি। শনিবার (২০ জুন) নতুন করে আরো ৯১ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২২০ জনে।
এদিকে জেলায় করোনাভাইরাস থেকে নতুন করে ৩৮ জন সুস্থ হয়েছেন। এর আগে জেলায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ৩৮০ জন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১৮ জন।
বর্তমানে অন্য জেলায় শনাক্তকৃত ২ জন করোনা পজেটিভসহ জেলায় মোট ৭৮৪ জন করোনা রোগী এবং ৫ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতাল ও নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।
এর মধ্যে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে একজন কোভিড-১৯ পজেটিভ রোগী ভর্তি রয়েছেন।
শনিবার (২০ জুন) দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, কিশোরগঞ্জ জেলা থেকে শনিবার (১৩ জুন), রোববার (১৪ জুন), সোমবার (১৫ জুন), মঙ্গলবার (১৬ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) মোট সংগৃহীত ৪১৭ জনের নমুনা, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ও শুক্রবার (১৯ জুন) ভর্তিকৃত ১৭ জন জরুরী রোগী এবং বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে সোমবার (১৫ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) সংগৃহীত ২৪ জনসহ মোট ৪৫৮ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এর মধ্যে দুইটি নমুনা ইনভেলিড হয়ে গেছে।
প্রকাশিত ৪৫৬ জনের নমুনার ফলাফলে নতুন করে মোট ৯১ জনের পজেটিভ ও ৩৬৫ জনের নেগেটিভ এসেছে।
মোট ৪৫৬ জনের নমুনার মধ্যে রোববার (১৪ জুন), সোমবার (১৫ জুন), মঙ্গলবার (১৬ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) সংগৃহীত ১৭১ জনের নমুনা এবং শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) ও শুক্রবার (১৯ জুন) ভর্তিকৃত ১৭ জন জরুরী রোগীসহ মোট ১৮৮ জনের নমুনা শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়। এতে ২৮ জনের পজেটিভ এবং ১৬০ জনের নেগেটিভ এসেছে।
অন্যদিকে ১৩ জুন (শনিবার) সংগৃহীত ২৪৪ জনের নমুনা মহাখালীর ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ (আইপিএইচ) এ পরীক্ষা করা হয়। সেখানে ৫৭ জনের পজেটিভ এবং ১৮৭ জনের নেগেটিভ এসেছে।
এছাড়া কোভিড-১৯ সেন্টিনেল সার্ভিলেন্স ইন বাংলাদেশ জরিপ কার্যক্রম পরিচালনার অংশ হিসেবে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে সোমবার (১৫ জুন) ও বুধবার (১৭ জুন) সংগৃহীত ২৪ জনের নমুনা আইসিডিডিআরবি’তে পরীক্ষা করা হয়। এতে ৬ জনের পজেটিভ ও ১৮ জনের নেগেটিভ এসেছে।
নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া এই ৯১ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, তাড়াইল উপজেলায় ২ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৫ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৬ জন, ভৈরব উপজেলায় ৩৬ জন, নিকলী উপজেলায় ১ জন, ইটনা উপজেলায় ১ জন, মিঠামইন উপজেলায় ১ ও বাজিতপুর উপজেলায় ১৩ জন রয়েছেন।

শনিবার (২০ জুন) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ১২২০ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

তাদের মধ্যে ২০ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন। সর্বশেষ শনিবার (২০ জুন) রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে গত সোমবার (১৫ জুন) ভৈরবে মারা যাওয়া সগীর আহমেদ এর নমুনায় কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৪ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ১ জন, ভৈরব উপজেলার ৮ জন, নিকলী উপজেলার ১ জন, বাজিতপুর উপজেলার ১ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com