সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
আশুলিয়ায় চালু হয়ে গেল তিনশতাধিক পোষাক কারখানা

আশুলিয়ায় চালু হয়ে গেল তিনশতাধিক পোষাক কারখানা

ঢাকা জেলা প্রতিনিধি :সাভারের আশুলিয়ায় চালু হয়ে গেল তিনশতাধিক পোষাক কারখানা ।প্রায় তিন লক্ষাধিক শ্রমিক কাজে যোগ দিয়েছে গত সোমবার ।সম্পূণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে এসব কতারখানা চালু করা হয়েছে বলা হলেও আসলে অধিকাংশ কারখানায় ৭০-৮০ ভাগ শ্রমিক কাজে যোগ দিয়েছে । সকালে কাজে যাওয়ার সময় এবং বিকেলে ছুটির সময় শত শত শ্রমিকের ঢল দেখে নগরজুরে এখন আতঙ্ক ছড়িয়ে পরেছে করোনাভাইরাস মহামারির ভয়াবহ সংক্রমণের আশঙ্কায় ।

শিল্পাঞ্চল সাভারে তৃতীয় দিনের মতো সামাজিক নিরাপত্তা উপেক্ষা করে শ্রমিকরা কারখানায় উৎপাদন অব্যাহত রেখেছেন। কারখানায় অনেকটা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে উৎপাদন ব্যবস্থা অব্যাহত রাখলেও বিজিইএমইএর তদারকি নিয়ে বিস্তর অভিযোগ শ্রমিক নেতাদের। এছাড়া আশুলিয়ার একটি কারখানায় গাইবান্ধা ফেরত এক শ্রমিক করোনা পজেটিভ হওয়ায় তাকে হোমকোয়ারিন্টিনে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) সকালে পুলিশি নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে প্রতিদিনের মত কারখানায় কাজে যোগ দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে উৎপাদন শুরু করেন শ্রমিকরা জানান শিল্প পুলিশ ।

তবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা মানা হচ্ছেনা বলে অভিযোগ শ্রমিক নেতাদের। শ্রমিক নেতারা এসময় অভিযোগ করেন, স্থানীয়ভাবে বিজিএমইএর কার্যালয় থাকলেও তাদের কোন কর্মকান্ড নেই।

আশুলিয়া শিল্প সহকারী পুলিশ সুপার আবু জাফর বলেন, সামাজিক দূরত্ব মেনেই কাজ চলছে। কোথাও কোন বিশৃঙ্খলা পাইনি।

কারখানার একজন কর্মকর্তা জানান, বিজিএমইএ থেকে পরিদর্শনে না এলেও তাদের নির্দেশনা অনুসরণ করা হচ্ছে।

আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় বিজিএমইএ’র স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মূল ফটকে তালা ঝুলা দেখা যায়। তবে এসময় একজন নিজেকে বিজেএমইএ’র স্বাস্হ্য কেন্দ্রের কর্মকর্তা দাবি করে জানান, কারখানা পরিদর্শন বা করোনার চিকিৎসা দেয়া তাদের কাজ না।

বিজিএমইএ স্বাস্থ্য কেন্দ্র প্রশাসনিক কর্মকর্তা সুজন আহমেদ সুমন বলেন, আমাদের তো ফ্যাক্টরিতে কাজ না। তবে এখানে

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com