সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
ঈশ্বরদীর সিএনজি চালকরা খাদ্যাভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে

ঈশ্বরদীর সিএনজি চালকরা খাদ্যাভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে

প্রতিনিধি ঈশ্বরদী :-বৈশ্বিক মহামারী দুর্যোগ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন আমাদের ঈশ্বরদীর সিএনজি চালকরা খাদ্যাভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে।

প্রশ্ন দেখা দিয়েছে…….?

সিএনজি চালক ও মালিক সমিতির নামে ঈশ্বরদীর ৩টি স্পট ” ঈশ্বরদী রেলগেট, দাশুড়িয়া ও রুপপুর মোড় ” থেকে দৈনিক সিএনজি প্রতি ৪০ টাকা করে খুল্লামখুল্লা চাঁদাবাজি করা হয় এবং –
বাইরের কোন সিএনজি ঈশ্বরদী এলাকার মধ্যে প্রবেশ করলেই ১০ টাকা করে বাধ্যতামূলক চাঁদা আদায় করা হয়।

৩টি স্পটের সিএনজি স্টেশন মাষ্টারদের তথ্য মতে ঈশ্বরদীতে ২ হাজারের অধিক সিএনজি রয়েছে।

অর্থাৎ প্রতিদিন ২০০০ × ৪০ টাকা = ৮০ হাজার টাকা ; প্রতিমাসে ২৪ লাখ টাকা চাঁদাবাজি করা হয়

প্রতি বছরে ২ কোটি ৮৮ লাখ টাকার উপরে চাঁদাবাজি করা হচ্ছ ঈশ্বরদীর সিএনজি চালক ও মালিক সমিতির নামে

চাঁদাবাজির এত টাকা কোথায় গেল ?
সমিতির কর্মহীন চালকদের অর্থ সংকট জনিত খাদ্যাভাবে কেন মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে ?

বৈশ্বিক এই মহামারী দুর্যোগের সময় কর্মহীন হতদরিদ্র সিএনজি চালকদের খাদ্যাভাব নিরসনে চাঁদাবাজির বিশাল অংকের এই টাকার কিছুটা হলেও তো কাজে লাগানোর কথা ?

যেহেতু, ঈশ্বরদীর সিএনজি চালক ও মালিক সমিতির নামে চাঁদাবাজির টাকার কোন হদিস নেই, দুর্যোগের সময় কর্মহীন চালকদের পরিবার পরিজন নিয়ে খাদ্যাভাবে চরম মানবেতর জীবনযাপন করতে হচ্ছে!

এমতাবস্থায়, সিএনজি চালক ও মালিক সমিতির নামে ঈশ্বরদীর ৩টি স্পটের চাঁদাবাজি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কোন পদোক খেপ চোখে পরে না।কারন তাদের চোখের সামনেই এই গুলো হয়।

সংবাদটি প্রচার করুন




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com