সদ্য প্রাপ্ত
দে‌শের প্রতি‌টি জেলা উপ‌জেলায় সংবাদকর্মী নি‌য়োগ দেওয়া হ‌বে। আগ্রহিরা যোগা‌যোগ করুনঃ ০১৯২০৫৩৩৩৩৯
শিরোনামঃ
‌ ত্রিশাল পৌরসভার বা‌জেট ঘোষণা কোভিড (১৯) রে‌া‌ধে দিনাজপুর জেলা পু‌লিশ সুপা‌রের বি‌শেষ অ‌ভিযান শ্রীপুরে আওয়ামী লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত এ‌তি‌মদের ভো‌গের টাকায় উই পোকার আক্রমন করোনা ভাইরাস জনিত রোগ কোভিড ১৯ সংক্রমন বিস্তাররোধ করায় টাঙ্গাইল পৌরসভা ও এলেঙ্গা পৌরসভায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে গণ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ । ” টাঙ্গাইলে প্রেমিকার আত্মহত্যা “ আওয়ামী লীগের হাত ধরেই স্বাধীনতা সোনার বাংলাদেশ লায়ন আলহাজ্ব আবু তৌহিদ শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এর ৪০তম শাহাদাত বার্ষিকীর আলোচনা সভা ঈশ্বরগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফিং ঈশ্বরগঞ্জে দুই জনের কারাদন্ড
ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ
এবার নাটোরের গোপালপুর পৌরসভাতে তে ত্রাণ নিয়ে তুঘলকি কান্ড

এবার নাটোরের গোপালপুর পৌরসভাতে তে ত্রাণ নিয়ে তুঘলকি কান্ড

স্টাফ রিপোর্টারঃ সারা বিশ্বব্যাপী করোনার প্রভাবে সৃষ্ট হওয়া মহামারীতে সবচেয়ে বিপদে পড়েছেন সমাজের দরিদ্র শ্রেণীর ব্যক্তিরা । ত্রাণ নিয়ে সারাদেশে যখন গরীব খেটে খাওয়া মানুষের আহাকার তখনই নাটোরের লালপুর উপজেলার গোপালপুর পৌরসভা তে তুঘলকি কাণ্ড ।

সূত্র , জানায় করোনার প্রভাবে প্রধানমন্ত্রীর তহবিল ও জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে পাঠানো ৩৬ মেট্রিকটন খাদ্য সামগ্রী গোপালপুর পৌরসভায় পৌঁছলেও তা গরীবদের হাতে না পৌঁছে আবার ঘুরে চলে যায় জেলা প্রশাসনের কাছে ।এটা পৌর মেয়র আশিকার করেছে।এখন পুরো নাটোর জেলা ও গোপালপুর পৌরসভার এটাই টক অফ দা টাউন।
ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়ে জানা যায়, জেলা প্রশাসনের বরাদ্দকৃত এই খাদ্য সামগ্রী গোপালপুর পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম মোলাম এর কাছে পৌঁছলেও তিনি তা পৌরবাসীর কাছে পৌঁছাতে পারেননি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পৌরসভার একজন কাউন্সিলর বলেন, আমাদের পৌর মেয়রের রাজনৈতিক মতবিরোধ এবং তার সঙ্গে উপজেলা প্রশাসন সহ সকল স্থানীয় প্রশাসনের সমন্বয়হীনতার অভাব রয়েছে তার কারণেই পৌরসভার ত্রান ঘুরে নাটোরে চলে গেছে।
এ ব্যাপারে পৌর মেয়র নজরুল ইসলামের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি এবং ফোন কলটি কেটে দেন ফোন ধরলেও বেশি কথা বলে নাইএবং এই বিষয় এ কোন কথা, বলেন নাই তিনি এবং সে রাগান্বিত হয়ে সাংবাদিকে গালা গালি ও করে।তার পর ও সঠিক তথ্য জানার জন্য পপরবর্তীতে তার ব্যবহৃত নাম্বার ০১৭১৫-৬৭৩৩২২ এ
এ যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

তবে এ ব্যাপারে লালপুর উপজেলা নির্বাহি অফিসার উম্মুল বাণী দ্যুতি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং তিনি বলেন উপজেলা প্রশাসন এ ব্যাপারে খতিয়ে দেখছে।
এদিকে বিষয়টি জানাজানি হলে গোটা গোপালপুর পৌরসভার দরিদ্র শ্রেণীর খেটে খাওয়া মানুষ এবং বিশিষ্টজনরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং অনিতি বিলোম বে তার আপসরন চায়।গোপালপুর বাসী এই ঘটনার জন্য প্রশাসনের ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সাহায্য চায়।

সংবাদটি প্রচার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020 Daily Provat Barta
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com